An easy way to preserve hilsa throughout the year

বছরজুড়ে ইলিশ সংরক্ষণের সহজ পদ্ধতি

Read Time:4 Minute, 17 Second

স্বাদে অতুলনীয় বলে মাছের জগতে ইলিশ রাজা। খাওয়ার উপকারিতা এবং পুষ্টিগুণেও ভরপুর ইলিশ। খনিজ উপাদানেও সেরা। সে-কারণে বছরজুড়ে ইলিশ সংরক্ষণ জরুরি।

ইলিশ মাছে আছে আয়োডিন, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক, পটাশিয়াম। থাইরয়েড গ্ল্যান্ড সুস্থ রাখে আয়োডিন, সেলেনিয়াম উৎসেচক ক্ষরণে সাহায্য করে—যা ক্যান্সারের মোকাবিলা করতে পারে।

এ ছাড়া ইলিশে থাকা খনিজ, বিশেষ করে ফসফরাস—দাঁত এবং ক্যালসিয়াম হাড়ের পুষ্টির জন্য একান্ত অপরিহার্য।

সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও লৌহ স্বাভাবিক শরীর বৃদ্ধি এবং মানসিক বিকাশের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় উপাদান।

তাই ইলিশ সবারই একটি প্রিয় মাছ। সুস্বাদু এই মাছ খেতে ভালোবাসে না—এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়!

ভোজনরসিক মানুষদের প্রথম পছন্দ সাগরের ইলিশ। কারো কারো কাছে নদীর ইলিশ আরো প্রিয়। কিন্তু ইলিশ সব সময় পাওয়া যায় না। 

ইলিশের মৌসুমে যেমন প্রচুর ইলিশ পাওয়া যায়, তেমনি দামও থাকে হাতের নাগালে।

অন্যসময় দাম অনেক উঠা-নামা করে। সে-কারণে বছরজুড়ে ইলিশ খেতে চাইলে ঘরেই সংরক্ষণ করা জরুরি।

সঠিকভাবে সংরক্ষণ করলে মাছের স্বাদ-গন্ধ—কোনোটিরই বিশেষ পরিবর্তন হয় না।

সংরক্ষণের দুই উপায়

ইলিশ সংরক্ষণের দুই উপায় অধিক পরিচিত ও কার্যকর। আসুন জেনে নিই, কীভাবে সংরক্ষণ করতে হবে—

হলুদের গুঁড়া দিয়ে সংরক্ষণ

১. প্রথমে ইলিশ মাছ টুকরা করে কাটতে হবে। এর পর পানিতে পরিষ্কার করে ধুতে হবে।

২. একটি মাছের জন্য ১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া, ১ চা চামচ মরিচের গুঁড়া, আধা চা চামচ ধনিয়ার গুঁড়া ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে দিয়ে মেখে নিতে হবে।

৩. মসলামাখা মাছের টুকরা একটি মুখবন্ধ বাটিতে নিয়ে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন।

এভাবে রাখলে কয়েক মাস ভালো থাকবে। তবে আস্ত ইলিশ মাছ সংরক্ষণ করা অধিক ভালো।

ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণ

ডিপ ফ্রিজে ইলিশ সংরক্ষণ করতে চাইলে আস্ত ইলিশ পলিথিন ব্যাগে ঢুকিয়ে পেঁচিয়ে নিন। ভেতরে যেন বাতাস প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

এর পর ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন পলিথিন মোড়ানো ইলিশ। সারা বছর স্বাদ অটুট থাকবে। চাইলে কেটেও সংরক্ষণ করতে পারেন।

—ডেস্ক শুভ কৃষি

ইলিশ-কথা

ইলিশের বৈজ্ঞানিক নাম : Tenualosa ilisha. এটি বাংলাদেশের জাতীয় মাছ। ইলিশ সামুদ্রিক মাছ হলেও, বড় নদীতে ডিম দেয়। ডিম ফুটে গেলে ও বাচ্চা বড় হলে (জাটকা) ইলিশ মাছ সাগরে ফিরে যায়।

বাঙালিদের কাছে ইলিশ খুব জনপ্রিয়। ২০১৭ সালে ইলিশ মাছ বাংলাদেশের ভৌগোলিক নির্দেশক বা জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

ইলিশ অর্থনৈতিকভাবে খুব গুরুত্বপূর্ণ মাছ। বাংলাদেশের পদ্মা-মেঘনা-যমুনা নদীর মোহনার হাওর থেকে প্রতি বছর প্রচুর পরিমাণে ইলিশ মাছ ধরা হয়। ভারতসহ আরো বেশ কয়েকটি দেশে ইলিশ পাওয়া যায়।

* ইলিশ-কথা সংক্ষিপ্তভাবে এ-পর্যন্ত, বিস্তারিত আসছে…

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleppy
Sleppy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *